মেনু নির্বাচন করুন

ভূমি সিটিজেন চার্টার

ক্রমিক

নং

সেবা প্রদানকারী অফিসেরনাম

সেবার নাম

দায়িত্বপ্রাপ্তকর্মকর্তা / কর্মচারী

সেবাপ্রদানেরপদ্ধতি

(সংক্ষেপে)

সেবাপ্রাপ্তিরপ্রয়োজনীয়সময় ও খরচ

সংশ্লিষ্টআইন

/ বিধি/নীতিমালা

নির্দিষ্টসেবাপেতে

ব্যর্থহলে পরবর্তী প্রতিকারকারী কর্মকর্তা

০১

উপজেলা ভূমি অফিস

ভূমিহীনদের মাঝে কৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত প্রদান

১. জেলা প্রশাসক

২। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব)

৩ উপজেলা নির্বাহী অফিসার

৪. সহকারী কমিশনার (ভূমি)

 

আবেদন প্রাপ্তির পর আবেদনকারী প্রকৃত ভূমিহীন কিনা তা ইউনিয়ন পর্যায়ে প্রকাশ্য সভা আহ্বান করে উপজেলাকৃষি খাস জমি ব্যবস্থাপনা ও বন্দোবস্ত কমিটি কর্তৃক যাচাই করা হয়। পরবর্তীতে উপজেলা ভূমি অফিসে সংশ্লিষ্ট রেজিস্টারে এন্ট্রি (রেজিস্টার-১২) দিয়ে সরেজমিন তদন্ত ও রেকর্ডপত্র যাচাই অন্তে প্রস্তাব/ প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ইউনিয়ন ভূমি অফিসে প্রেরণ করা হয়। চাহিত ভূমির অবস্থান ও রেকর্ডপত্র যাচাই করে প্রস্তাব/ প্রতিবেদন উপজেলা ভূমি অফিসে প্রেরণ করা হয়।  প্রাপ্ত প্রস্তাবের উপর উপজেলা ভূমি অফিসের কানুনগো/ সার্ভেয়ারের মতামত গ্রহণ এবং আবেদন সংশ্লিষ্ট কৃষি খাস জমির স্কেচ ম্যাপ তৈরি করা হয় । অত:পর বন্দোবস্ত প্রস্তাব উপজেলা কৃষি খাস জমি ব্যবস্থাপনা ও বন্দোবস্ত কমিটির সভায় উপস্থাপন করা হয় এবং তা জেলা কমিটিতে  অনুমোদনের জন্য জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে প্রেরণ করা হয়। জেলা প্রশাসক কর্তৃক চূড়ান্ত অনুমোদনের পর সহকারী কমিশনার (ভূমি) কর্তৃক কবুলিয়ত সম্পাদন এবং সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের মাধ্যমে দলিল রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করা হয় এবং ভূমিহীনদের দখল বুঝিয়ে দেয়া হয়। তাছাড়ানামজারি ও জমাভাগকরণ এবং রেকর্ড সংশোধনের জন্য ইউনিয়ন ভূমি অফিসে প্রেরণ করা হয়ে থাকে।  রেকর্ড সংশোধনঅন্তে ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা কর্তৃক তামিল প্রতিবেদন উপজেলা ভূমি অফিসে প্রেরণ করার মাধ্যমে কাজটি সম্পন্ন  হয়ে থাকে।

সময়: সাধারণত

৬০-90 দিন

 

খরচ: সালামি – ১ টাকা

রেজিস্ট্রেশন ফি – ২৪০ টাকা

১. কৃষিখাসজমিব্যবস্থাপনাওবন্দোবস্তনীতিমালা- ১৯৯৭

২. ভূমি ব্যবস্থাপনা ম্যানুয়াল- ১৯৯০

৩. ভূমি সংস্কার অধ্যাদেশ ১৯৮৪

জেলা প্রশাসক

 

০২

--

হাট বাজারের চান্দিনাভিটি একসনা বন্দোবস্ত প্রদান

১. জেলা প্রশাসক

২। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব)

৩ উপজেলা নির্বাহী অফিসার

৪. সহকারী কমিশনার (ভূমি)

 

উপজেলা ভূমি অফিসে আবেদনপ্রাপ্তির পর তা সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন ভূমি অফিসে প্রেরণ করা হয়। ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা সরেজমিনে তদন্ত ও রেকর্ডপত্র যাচাই অন্তে প্রতিবেদন দাখিল করেন। উপজেলা ভূমি অফিসের কানুনগোর মতামত গ্রহণের পর সহকারী কমিশনার (ভূমি) কর্তৃক পরীক্ষান্তে মতামতসহ প্রস্তাব অনুমোদনের জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর প্রেরণ করা হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রাপ্ত প্রস্তাব পরীক্ষান্তে মতামতসহ  অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) বরাবর প্রেরণ করেন। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) কর্তৃক প্রস্তাব উপস্থাপন এবং জেলা প্রশাসক কর্তৃক তা অনুমোদনপূর্বকঅনুমোদিত প্রস্তাব উপজেলা ভূমি অফিসে প্রেরণ করা হয়ে থাকে। অতঃপর লিজমানি আদায় ও লাইসেন্স প্রদানের নিমিত্ত লিজগ্রহীতাকে পত্র দেয়া হয়।  লিজমানি আদায়অন্তে নথি সংরক্ষণ করা হয়ে থাকে।

সময়: সাধারণত

40-৪৫ দিন

 

খরচ: প্রতি বর্গমিটার

১. সিটি কর্পোরেশন এলাকায় ৫০০/-,

২. পৌর এলাকায় ১২৫/- 

৩. জেলা সদর ব্যতীত ১০০/- টাকা

৪. উপজেলা সদর ৫০/- এবং

৫. অন্যান্য ২০/- টাকা

 

১। হাটবাজারের সরকারি খাস জমি বন্দোবস্ত সংক্রান্ত ১৯৯৫ সালের সার্কুলার  ও তৎপরবর্তী সার্কুলার

২। ভূমি ব্যবস্থাপনা ম্যানুয়াল, ১৯৯০

জেলা প্রশাসক

০৩

--

নামজারি ও জমাভাগ/জমা একত্রিকরণ

সহঃ কমিশনার (ভূমি),

নামজারি সহকারী

সাব রেজিস্টার অফিসের ল্যান্ড ট্রান্সফার (LT) নোটিশ অথবা আবেদনকারী হতে আবেদন প্রাপ্তির পর সংশ্লিষ্ট রেজিস্টারে এন্ট্রি দিয়ে ইউনিয়ন ভূমি অফিসে প্রেরণ করা হয়। ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা সরেজমিন তদন্ত ও রেকর্ডপত্র যাচাই অন্তে প্রস্তাব / প্রতিবেদন উপজেলা ভূমি অফিসে প্রেরণ করেন। অতঃপর সহকারী কমিশনার (ভূমি) শুনানির তারিখ ধার্য করে আবেদনকারী/ রেকর্ডীয় মালিক এবং স্বার্থ সংশ্লিষ্টদের নোটিশ প্রদান করেন। ধার্য তারিখে শুনানি ও কাগজপত্র পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে নামজারি মঞ্জুর/ না মঞ্জুর করা হয়। আবেদন মঞ্জুর হলে ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা কর্তৃক প্রস্তুতকৃত ০৫টি খতিয়ানের কপিতে স্বাক্ষর অন্তে মূল নথিতে ১ কপি সংরক্ষণসহ ১ কপি জেলা রেকর্ড রুম এবং ১ কপি ইউনিয়ন ভূমি অফিসে প্রেরণ করা হয়। অতঃপর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা কর্তৃক রেকর্ড সংশোধন এবং হোল্ডিং চালু করে তামিল প্রতিবেদন উপজেলা ভূমি অফিসে প্রেরণ করা হয়।

সময়:সর্বোচ্চ ৪৫ দিন

মহানগরীর জন্য ৬০ দিন

খরচ: ১. আবেদন ফি(কোর্ট ফি)- ৫/- টাকা

২. নোটিশ জারি ফি-২/-টাকা (অনধিক ৪ জনের জন্য) ৪ এর অধিক প্রতি জনের জন্য আরও ০.৫০ টাকা  প্রদান করতে হবে।

৩. রেকর্ড সংশোধন ফি-২০০ টাকা

৪. খতিয়ান ফি-৪৩ টাকা

সর্বমোট=২৫০/-টাকা

১. এসএ এ্যান্ড টি এ্যাক্ট, ১৯৫০

২. ভূমি ব্যবস্থাপনা ম্যানুয়াল ১৯৯০

৩। ভূমি মন্ত্রণালয়ের ০৫/০৪/২০১০ তারিখের পরিপত্র

 

অতিরিক্তজেলা প্রশাসক (রাজস্ব)

০৪

--

নামজারি ও জমাভাগ/জমা একত্রিকরণ কেসের ডুপ্লিকেট খতিয়ানপ্রদান

সহঃ কমিশনার (ভূমি)

নামজারি    সহকারী

ইউ.ভূ.সক

 

সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর আবেদন দাখিল করতে হয়। থানায় জিডি এন্ট্রিসহ আবেদনকারীর নিকট হতে প্রাপ্ত আবেদনের বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্ত সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তার নিকট প্রেরণ করা হয়। পরবর্তীতে যাচাই বাছাই অন্তে  ডুপ্লিকেট পর্চা তৈরি করে সহকারী কমিশনার (ভূমি)-এর নিকট উপস্থাপন করা হয়। সহকারী কমিশনার (ভূমি) পরীক্ষান্তে স্বাক্ষর প্রদান করেন এবং আবেদনকারীকে সরবরাহ করার নির্দেশ দেন। ১ কপি সংশ্লিষ্ট নামজারি মোকদ্দমার নথিতে সংরক্ষণ করা হয়ে থাকে।

সময়:সর্বোচ্চ ০৫ দিন

খরচ:আবেদন ফি(কোর্ট ফি)- ১০ টাকাএবংখতিয়ান ফি-৪৩ টাকা সর্বমোট ৫৩/-

১. সাক্ষ্য আইন – ১৮৭২

২. রেকর্ড ম্যানুয়াল - 1943

অতিরিক্তজেলা প্রশাসক (রাজস্ব)

০5

--

নামজারি ও জমাভাগ/জমা একত্রিকরণ/বিবিধ  কেসের আদেশের নকল/সার্টিফাইড কপি প্রদান

 

সহঃ কমিশনার (ভূমি),

নামজারিসহকারী

আবেদনকারীর নিকট হতে আবেদন প্রাপ্তির পর তা সংশ্লিষ্ট রেজিস্টারে এন্ট্রি দেয়া হয়। অফিস সহকারী কর্তৃক আদেশের নকল লিখন / তুলনাকরণ করার পর সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর নিকট উপস্থাপন করা হয়। সহকারী কমিশনার (ভূমি) পরীক্ষান্তে তাতে স্বাক্ষর প্রদান করেন। অতঃপর আবেদনকারীকে তা সরবরাহ / প্রদান করা হয় এবং ১ কপি সংশ্লিষ্ট নামজারি মোকদ্দমার নথিতে সংরক্ষণ করা হয়।

সময়:সর্বোচ্চ ০৫ দিন

 

খরচ:আবেদন ফি(কোর্ট ফি)- ১০/- টাকা

১. এসএ এ্যাণ্ড টি এ্যাক্ট, ১৯৫০

২. প্রজাস্বত্ব বিধিমালাভূঃ ব্যঃ ম্যানুঃ

৩. রেকর্ড ম্যানুয়ালপরিপত্র

অতিরিক্তজেলা প্রশাসক (রাজস্ব)

০6

--

দেওয়ানী আদালতের রায়/আদেশমূলেরেকর্ডসংশোধন

১. অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব)

২. উপজেলা নির্বাহী অফিসার

৩. সহকারী কমিশনার (ভূমি)

৪. ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা

উপজেলা ভূমি অফিসে আবেদনপ্রাপ্তির পর বিবিধ কেস নথি সৃজন করে প্রস্তাব / প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন ভূমি অফিসে প্রেরণ করা হয়। প্রস্তাব / প্রতিবেদন প্রাপ্তির পর তা যাচাই করে (বিশেষত সরকারি স্বার্থ আছে কিনা) মতামতসহ নথি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) বরাবর প্রেরণ করা হয়।  অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র / দলিলাদি এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি)  এর মতামত যাচাই / পরীক্ষান্তে অনুমোদন করে নথি সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর প্রেরণ করেন। অথবা আপীল করার পরামর্শ দেন বা মতামতের জন্য ভূমি মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করেন। অনুমোদন প্রাপ্তির ক্ষেত্রে সংশোধিত খতিয়ান কপি প্রস্তুত করে উপজেলা ভূমি অফিসে প্রেরণের জন্য সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা বরাবর রেকর্ড সংশোধনের অনুমোদন কপি প্রেরণ করা হয়। সংশোধিত ০৫ কপি খতিয়ান কপি প্রাপ্তির পর তাতে স্বাক্ষর প্রদান করে সংশ্লিষ্ট আবেদনকারী, জেলা রেকর্ড রুম এবং ইউনিয়ন ভূমি অফিসে প্রেরণ করা হয়।  ইউনিয়ন ভূমি অফিস ও উপজেলা ভূমি অফিসে ভূমি সহকারী কর্মকর্তা রেকর্ড সংশোধন করার করে উপজেলা ভূমি অফিসে তামিল প্রতিবেদন প্রেরণ করার মাধ্যমে কার্যক্রমটি সম্পন্ন করা হয়ে থাকে।